সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে কিশোরগঞ্জে মানববন্ধন

সাতকাহন রিপোর্ট

চাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ’, রাজনৈতিক দোষারোপ নয়,সহিংসতা রোধে সমস্ত ঘটনা’র সুষ্ঠু বিচার করতে হবে - ইত্যাদি  স্লোগান নিয়ে কিশোরগঞ্জে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) এর ব্যানারে কিশোরগঞ্জে  মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায়  শহরের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম চত্বরের সামনের সড়কে এ মানববন্ধন কর্মসূচি  অনুষ্ঠিত হয়।

এ মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা রোধে সরকারের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণে ৬টি সুপারিশ উপস্থাপন করা হয়।

১. সাম্প্রদায়িক সহিংসতার সমস্ত ঘটনার সাথে জড়িত প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেফতার এবং দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান; ২. সহিংস ঘটনার যেন বিস্তৃতি না ঘটে সেজন্য প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী কর্তৃক তাৎক্ষণিক জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণ; ৩. শাহাবুদ্দিন কমিশন কর্তৃক দাখিলকৃত প্রতিবেদন প্রকাশ এবং এতে উল্লেখিত সুপারিশের আলোকে ব্যবস্থা গ্রহণ; ৪. সাম্প্রদায়িক শক্তির প্রতি রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতা চিরতরে নির্মূল করতে হবে এবং প্রশাসনিক ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার পরিপূর্ণ নিরপেক্ষতা ও পেশাগত উৎকর্ষ নিশ্চিত করতে হবে; ৫. ধর্মীয় উগ্রবাদ ও সহিংসতা রোধে শিক্ষাক্রমে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বিষয় পাঠ্য হিসেবে  অন্তভুক্তকরণ; ৬. ভবিষ্যতে যেন সাম্প্রদায়িক সহিংসতার মতো জঘন্য অপরাধ সংঘটিত না হয় সেজন্য রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন।

আমিনুল ইসলাম সেলিমের সঞ্চালনায় সনাক সভাপতি সাইফুল হক মোল্লা দুলু'র সভাপতিত্বে এ কর্মসূচিতে  কিশোরগঞ্জ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি মো. ফিরোজ উদ্দিন ভূঁইয়া, কিশোরগঞ্জ জেলা মানবাধিকার আইনজীবী পরিষদের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট হামিদা বেগম, নারী নেত্রী মাহফুজ আরা পলক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মানস কর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।